Home জানা অজান অস্ট্রেলিয়ায় উট আসলো কোথা থেকে?

অস্ট্রেলিয়ায় উট আসলো কোথা থেকে?

254
0
 ছবিতে The Ghan ট্রেন এবং তার লোগো।

অস্ট্রেলিয়ায় ১০ হাজার উট গুলি করে মারা হচ্ছে। কিন্তু অস্ট্রেলিয়ায় উট আসলো কোথা থেকে? সে এক ঐতিহাসিক ঘটনা। যার সঙ্গে জড়িয়ে আছে অস্ট্রেলিয়ার যোগাযোগ ব্যবস্থা এবং আফগানিস্তান ও ভারতীয় উপমহাদেশের নাম।

অস্ট্রেলিয়ার দক্ষিণ অংশ মরুভূমির মতো। তখন মোটরগাড়ির ব্যবহার শুরু হয়নি এবং রেল যোগাযোগও চালু হয়নি। মরুভূমিতে যাতায়াত ছিলো খুবই কঠিন। উত্তর অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ার যাতায়াত ছিলো দুঃস্বপ্ন।

মরুভূমিতে যাতায়াতেরএই সমস্যা সমাধানের জন্য উট নিয়ে আসার পরামর্শ দেন ভূগোলবিদ ও সাংবাদিক Conrad Malte-Brun। সেটা ১৮২২ সালের ঘটনা।

এর প্রায় ২০ বছর পরে ১৮৪০ সালের ১২ অক্টোবর প্রথম উটটি অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে পা ফেলে। জাহাজে করে দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ার আদেলাইদি বন্দরে উটটিকে নিয়ে আসা হয়। প্রথম ওই উটটি আনা হয়েছিলো স্পেনের ক্যানারী দ্বীপ থেকে। নয়টি উট জাহাজে তোলা হয়েছিলো তার মধ্যে ৮ টি যাত্রাপথে মারা যায়। একটিমাত্র উট বেঁচে থাকে। তার নাম দেয়া হয়েছিলো ‘হ্যারি।’

হ্যারিকে কিনে নেন John Horrocks নামের এক ব্যক্তি। ৯০ ডলার দিয়ে তিনি হ্যরিকে কিনেন, যা তখন ৬ টি গরুর সমান।

অস্ট্রেলিয়ার মরুভূমিতে উটটি টিকে থাকতে পারে কিনা তা পরীক্ষা করে দেখাই ছিলো উদ্দেশ্য। পরীক্ষায় পাশ করে হ্যারি।

কিন্তু, এই হ্যারির দুঃখজনক এক ইতিহাস রয়েছে। অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার মাত্র ৬ বছর পরে তার দ্বারা একটি দুর্ঘটনার কারণে তার মালিক গুলিতে মৃত্যুবরণ করে। মৃত্যুর আগে মালিক হ্যারিকেও গুলি করে মেরে ফেলার নির্দেশ দিয়েছিলেন। তা কার্যকর করা হয়েছিলো।

এর পরে তাসমানিয়া, ওমান, পাকিস্তান, ভারত, আফগানিস্তান, মিশর, তুরস্ক থেকে উট নিয়ে যাওয়া শুরু হয়। উট চালানো জন্য চালকও দরকার ছিলো। উট চালক ও ব্যবসায়ীরা তখন এসব দেশ থেকে অস্ট্রেলিয়ায় যায়।

উটগুলো ৬০০ কেজি পর্যন্ত ওজন পিঠে নিয়ে একদিনে সর্বোচ্চ ২৫ মাইল পর্যন্ত যেতে পারতো।

উটের চালক ও ব্যবসায়ীরা মূলত মুসলিম ছিলেন এবং বেশিরভাগ গিয়েছিলেন আফগানিস্তান থেকে। সেজন্য ওইসব উট চালক ও ব্যবসায়ীদের ডাকা হতো “ঘান” (Ghan) নামে। ( আফগান এর সংক্ষিপ্ত করে ঘান ডাকা হতো)।

এরপর ১৯২০ এবং ১৯৩০ সালের দিকে মোটরগাড়ি এবং রেল যোগাযোগ শুরু হয়। দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে উত্তর অস্ট্রেলিয়ার যোগাযোগের জন্য ১৯২৯ সালে চালু হয় ২ হাজার ৯৭৯ কিলোমিটার রেলপথ।

তখন উটের প্রয়োজন ফুরিয়ে যায়। অনেকেই তাদের উটগুলো মুক্ত করে দেন। উটগুলো তখন বন জঙ্গলে থাকতে শুরু করে। এখন অস্ট্রেলিয়ায় প্রায় ১০ লাখ উট রয়েছে। উটের মাংস এবং দুধের ব্যবসা রয়েছে অস্ট্রেলিয়ায়। পর্যটনেও উট ব্যবহার হচ্ছে।

দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়া ও উত্তর অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে ২ হাজার ৯৭৯ কিলোমিটার রেলপথ দিয়ে চলাচলকারী ওই ট্রেনের নাম দেয়া হয়েছে The Ghan। এই ট্রেনের লোগো হচ্ছে – ” উটের পিঠে মানুষ। ” যা এক দীর্ঘ ইতিহাস বহন করে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here