Home খাগড়াছড়ি আইন বহির্ভুত হত্যাসহ মানবাধিকার লঙ্ঘন বন্ধের দাবিতেমানিকছড়ি ও গুইমারায় তিন সংগঠনের বিক্ষোভ

আইন বহির্ভুত হত্যাসহ মানবাধিকার লঙ্ঘন বন্ধের দাবিতেমানিকছড়ি ও গুইমারায় তিন সংগঠনের বিক্ষোভ

129
0

পার্বত্য চট্টগ্রামে আইন বহির্ভূত হত্যাসহ মানবাধিকার লঙ্ঘন বন্ধের দাবিতে খাগড়াছড়ির মানিকছড়ি ও গুইমারায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে ইউপিডিএফভুক্ত তিন সংগঠন বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ(পিসিপি), গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম(ডিওয়াইএফ) ও হিল উইমেন্স ফেডারেশন (এইচডব্লিউএফ)।

‘আমরা শান্তি ও নিরাপত্তা চাই’ এই শ্লোগানে আজ বৃহস্পতিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০) সকালে মানিকছড়ি উপজেলা সদর এলাকায় অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশে মংনুচিং মার্মার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন ইউপিডিএফের মানিকছড়ি ইউনিটের সংগঠক সুদীপ্ত ত্রিপুরা, হিল উইমেন্স ফেডারেশনের লক্ষ্মীছড়ি উপজেলা শাখা সভাপতি চন্দনা চাকমা, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের খাগড়াছড়ি জেলা কমিটির সদস্য ক্যামরণ চাকমা ও পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের মানিকছড়ি উপজেলা শাখার সহ সাধারণ সম্পাদক ডেবিট চাকমা প্রমুখ।

অপরদিকে, সকাল ১১টায় একই দাবি ও শ্লোগানে তিন সংগঠনের মাটিরাঙ্গা-গুইমারা উপজেলা শাখার যৌথ উদ্যোগে গুইমারা উপজেলায় বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এতে অনিমেষ চাকমার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের মাটিরাঙ্গা উপজেলার সাধারণ-সম্পাদক শান্ত চাকমা ও গণতন্ত্রিক যুব ফোরাম মাটিরাঙ্গা উপজেলা শাখার নেতা শুভ চাকমা।

পৃথকভাবে অনুষ্ঠিত এসব সমাবেশে বক্তারা বলেন, সরকার পার্বত্য চট্টগ্রামে পাহাড়ি জনগণের ন্যায়সঙ্গত আন্দোলন দমনের জন্য রাষ্ট্রীয় বাহিনীকে আন্দোলনকারীদের  বিরুদ্ধে ব্যবহার করছে। রাষ্ট্রীয় বাহিনী কথিত গোলাগুলির নাটক সাজিয়ে আইন বহির্ভুতভাবে জনগণের প্রতিনিধিত্বকারী দল ইউপিডিএফ নেতা-কর্মীদের হত্যা-গুম করছে। এমনকি সরকারের সাথে চুক্তি স্বাক্ষরকারী দল পিসিজেএসএসের নেতা-কর্মীরা বিচার বহির্ভুত হত্যা-গুমের শিকার হচ্ছেন।

তারা অভিযোগ করে আরো বলেন, রাষ্ট্রীয় বাহিনী কর্তৃক অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করে মিথ্যা মামলা দিয়ে নেতা-কর্মীসহ সাধারণ জনগণকে কারাগারে নিক্ষেপ করছে, রাত-বিরাতে জনগণের ঘরবাড়িতে তল্লাশি-হয়রানিসহ চরম মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা প্রতিনিয়ত ঘটেই চলেছে। এই নিপীড়নের হাত থেকে স্কুল-কলেজেরছাত্ররাও রেহাই পাচ্ছে না। এছাড়াও একটি ঠ্যাঙারে বাহিনী সৃষ্টি করে তাদের প্রত্যক্ষ মদদ দিয়ে খুন-খারাবিসহ নানা সন্ত্রাসী কর্মকা- চালিয়ে অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টি করা হচ্ছে বলেও বক্তারা অভিযোগ করেন।

বক্তারা বলেন, আমরা পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তি ও নিরাপদে বসবাস করতে চাই। কিন্তু সরকার পার্বত্য চট্টগ্রামের পাহাড়িদের অস্তিত্ব ধ্বংস করে দেয়ার জন্য নানা চক্রান্ত জারি রেখে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টির মাধ্যমে ফায়দা লুটার চেষ্টা করছে। একটি সন্ত্রাসী গোষ্ঠীকে মদদ দিয়ে ভ্রাতৃঘাতি সংঘাত উস্কে দিচ্ছে বলেও তারা অভিযোগ করেন।

বক্তারা অবিলম্বে আইন বহির্ভুত হত্যা-গুম, অন্যায় গ্রেফতারসহ মানবাধিকার লঙ্ঘন বন্ধ করা ও আটক নেতা-কর্মীদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানান। একই সাথে বক্তারা পার্বত্য চট্টগ্রামে প্রকৃত শান্তি ও স্থিতিশীলতা বজায় রাখার স্বার্থে দমন-পীড়নের পথ পরিহার করে পার্বত্য চট্টগ্রাম সমস্যাকে রাজনৈতিকভাবে সমাধানের জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here