Home ক্রীড়া বার্তা ‘ক্রিকেটের স্বার্থে ট্রল সহ্য করতে রাজি’

‘ক্রিকেটের স্বার্থে ট্রল সহ্য করতে রাজি’

60
0
papon

জাতীয় দল থেকে বিসিবির যেকোন বয়স ভিত্তিক দল নির্বাচন কিংবা একাদশ গঠনসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ কাজ গুলোতে সব সময়ই ধর্তাকর্তা ছিলেন নাজমুল হাসান পাপন। এ কারণে অনেক সময় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ট্রলের শিকারও হয়েছেন তিনি। নাম দেওয়া হয়েছিও মি. ইন্টারফেয়ার। তার দাবি ৬ মাস দলের এসব কিছুতে ছিলেন না বলেই এমন অবস্থা। তবে ট্রলের শিকার হলেও দলের ভালোর জন্য আবারো ট্রল পেতে রাজি বিসিবি সভাপতি।

বিশ্বজয়ী যুব দলকে মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে বরণ করে নেওয়ার পর সংবাদ সম্মেলনে নাজমুল এ ব্যাপারে বলেছেন, ‘গত বিশ্বকাপের পর থেকে আমি সেভাবে হস্তক্ষেপ করিনি। বিশেষ করে ভারত সিরিজ থেকে টিম ম্যানেজম্যান্টের সিদ্ধান্তে আমি সরাসরি সম্পৃক্ত ছিলাম না। আর এখন আমাকে বলা হয় উল্টোটা। যদি আমাকে বলে টস জিতে ব্যাটিং নেবে, পরে দেখি বোলিং নিয়েছে। এসব ব্যাপার আমি বুঝতে পারছি না। দলের পারপরম্যান্সও নিম্নগামী।’

জাতীয় দলের ব্যর্থতায় পুরোনো অবস্থানে ফিরতে চান তিনি, ‘মনে হচ্ছে আমাকে আবার আগের জায়গায় ফিরতে হবে। সব তদারকি করতে হবে। যেটা করার কারণে আমাকে আপনারা নাম দিয়েছিলেন ‘মি. ইন্টারফেয়ারার’। আমি তো সেসব পত্র-পত্রিকায় দেখেছি। কিন্তু এখন আমাকে আবার সেই হস্তক্ষেপের জায়গায়ই ফিরতে হবে। কিছু করার নেই।’

কী কারণে সবকিছুতে হস্তক্ষেপ করতেন, সেটাও জানিয়েছেন বোর্ড প্রধান, ‘২০১৬ যুব বিশ্বকাপের সেমিফাইনালের টস টিভিতে দেখে আমার মেজাজ খারাপ হয়ে যায়। মেঘলা আবহাওয়ায় টস জিতে কেন ব্যাটিং নিয়েছে, জানতে চাইলে অনেকেই বলেছিল, আরে ওরা পারবে না। ওই দিনই বুঝেছি এভাবে হবে না, নজর রাখতে হবে। তারপর থেকেই সবকিছু তদারকি করতাম।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here