Home » bangladesh » চাকরির অবসরের বয়সসীমা বৃদ্ধি হলে আবেদনের বয়সসীমা বাড়বে না কেন ?

চাকরির অবসরের বয়সসীমা বৃদ্ধি হলে আবেদনের বয়সসীমা বাড়বে না কেন ?

আজ থেকে আগামী ২৮দিনের মধ্যে সরকারি ও বেসরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা বৃদ্ধির দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র পরিষদ নামের একটি ছাত্র সংগঠন ।আজ (২০ জুলাই) ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন ক্র্যাবে এক সংবাদ সম্মেলনে সরকারের কাছে এই দাবি জানায় ছাত্র সংগঠনটি ।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র পরিষদের যুগ্ম সম্পাদক সুলতানা আক্তার বলেন, গড় আয়ু বেড়েছে,চাকরি থেকে অবসরের বয়সসীমা বৃদ্ধি করা হয়েছে, প্রবেশের বয়স বৃদ্ধি করা হবে না কেন?

সংগঠনের সভাপতি ইমতিয়াজ হোসেন বলেন, আমাদের কাছে তথ্য আছে_ বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সহ সকল ছাত্র সংগঠন ৩৫ এর দাবি সাপোর্ট করেন,তাছাড়া বুদ্ধিজীবি মহল এবং প্রত্যেক রাজনৈতিক দল নির্বাচনী ইশতেহারে বয়সসীমা বৃদ্ধির কথা তুলে ধরেছিল। মাননীয় সংসদ সদস্যগণ এই দাবি সাপোর্ট করে মহান জাতীয় সংসদে প্রস্তাব পেশ করেন। সংসদে স্থায়ী কমিটিও পাঁচবার সুপারিশ করেন। মহামান্য রাষ্ট্রপতিও ৩৫ এর দাবির পক্ষে সুপারিশ করেছেন । দৈনিক পত্রিকাগুলোর জনমত জরিপে ৩৫ এর পক্ষে ৯৫ শতাংশ ভোট পড়ে।

৩৫ প্রত্যাশীদের কাছে সুনির্দিষ্ট তথ্য আছে ,শুধুমাত্র মাননীয় প্রধানমন্ত্রী চাচ্ছেন না বলেই বয়স বাড়ছে না!!

বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এম এ আলী বলেন, ধাপে ধাপে ছাত্রসমাজ বেকার, চাকরি প্রত্যাশীরা বারবার ক্ষতিগ্রস্ত।যদি আবারো তারা বঞ্চিত হয়, আবারও যদি তাদের কথা না ভাবা হয় তাহলে সকল জেলার ৩৫ প্রত্যাশীদের নিয়ে শাহবাগে স্বাস্থ্যবিধি মেনেই দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত লাগাতার অবস্থান কর্মসূচি পালন করব।

এম এ আলী মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিনীতভাবে আহবান জানিয়ে বলেন, করোনা এবং সেশনজট বিবেচনায় লক্ষ লক্ষ ছাত্র ছাত্রীদের কথা ভেবে চাকরিতে আবেদনের বয়স ন্যূনতম ৩৫ বছর করে দিন। তাহলে লক্ষ লক্ষ ছাত্র ছাত্রী উপকৃত হবে।

প্রসঙ্গত,সংবাদ সম্মেলন শেষে বাংলাদেশ সাধারন ছাত্র পরিষদের পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে একটি স্মারকলিপি দেওয়া হয়।উল্লেখ যে, একই দাবিতে দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে আন্দোলন করে আসছে একাধিক ছাত্র সংগঠন ।

আপনি এই খবরটি শেয়ার করতে পারেন!
প্রকাশ: সোমবার, জুলাই ২০, ২০২০এই লেখাটি 817 বার পড়া হয়েছে